Home / Affiliate Marketing / অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ২য় পর্ব – নিশ সাইট তৈরি করনের ধাপসমূহ

অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ২য় পর্ব – নিশ সাইট তৈরি করনের ধাপসমূহ

নিশ সাইট তৈরি করনের ধাপসমূহঃ

বিগত পর্বে আমারা সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছিলাম যে, আমার একটি নিশ সাইট তৈরি করে অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর কাজ শুরু করবো। হ্যা, তাই আজ আমরা জানবো যে, একটি নিশ সাইট তৈরি করনের ধাপসমূহ ও উপকরন সমূহ সম্পর্কে এবং তাহা সংগ্রহ করন উপায় সমূহ। পরবর্তী পর্বে আমরা একটি ডেম ওয়েব সাইট এর চিন্তা করে নিশ সাইট তৈরির সকল কার্যক্রম গুলো হাতে কলমে দেখানোর চেষ্টা করবো।

অর্থাৎ আমরা এখন একটি নিশ সাইট তৈরি করবো। তাই নির্দিষ্ট একটি প্রডাক্ট নিয়ে কাজ শুরু করবো। আমি একটি নিশ সাইট তৈরি করনের কাজগুলো ১০ টি ধাপে ভাগ করেছি।

নিচে ধাপে ধাপে প্রত্যেকটি কাজের বর্ণনা করিতেছি-

১। প্রডাক্ট বাছাই করন

২। ডমিন বাছাই করন

৩। কিওয়ার্ড রিসার্চ

৪। হোস্টিং

৫। ওয়ার্ড প্রেস ইনস্টল

৬। থিম

৭। অন পেইজ এসইও

৮। আর্টিকেল

৯। অফ পেইজ এসইও

১০। অন্যান্য

  • প্রডাক্ট বাছাই করনঃ

একটি নিশ সাইট তৈরি করতে যাচ্ছি, কোন প্রাডাক্ট নিয়ে কাজ করবো! কিংবা প্রডাক্ট বাছাই এর উপায় কী! অনেকেই সেই দুঃশ্চিন্তায় কাজে নামার সাহস হাড়িয়ে ফেলে। অ্যামাজনে লক্ষাধিক প্রাডাক্ট আছে। আপনি এখন থেকে যে কোন একটি প্রডাক্ট পছন্দ করতে পারেন।

প্রাথমিক অবস্থায় প্রডাক্ট পছন্দের বিষয়ে কিছু ধারনা থাকা জরুরী। যেমন, আপনি যে প্রডাক্টটি বাছাই করবেন তার মূল্য নূন্যতম ৫০-১০০ ডালারের মধ্যে হওয়া প্রয়োজন। এবং ঐ প্রডাক্ট এর মেইন কিওয়ার্ড এর সার্চ ভেলু ৭০০-২০০০ এর মধ্যে হলে ভাল হয়। মেইন কিওয়ার্ড বলতে, প্রডাক্ট মান এর পূর্বে Best লিখে সার্চ করে দেখতে পারেন। অর্থাৎ আপনার প্রডাক্ট যদি হয়, Coffee Maker, তবে আপনার মেইন কিওয়ার্ড হতে পারে Best Coffee Maker। সঠিক প্রডাক্ট পছন্দ করতে পারলে, কম প্রতিযোগীতার অল্পের মধ্যেই সফলতা অর্জন করা সম্ভব।

  • ডমিন বাছাই করনঃ

আমাদের প্রডাক্ট বাছাই হয়ে গেছে। এখন কাজ হলো ঐ প্রডাক্ট এর নামের  উপর একটি ডমিন খুজে বের করা। বেশির ভাগ সময়’ই আপনি প্রডাক্ট এর মানের উপর কিংবা মেইন কিওয়ার্ডের উপর ডমিন পাবেন না।

তাই আপনাকে প্রডাক্ট এর নামের উপর এস্ট্রা ম্যাচ ডমিন কিনতে হবে। যেমন আপনার কিওয়ার্ড যদি হয় Best Coffee Maker তবে এই নামে ডমিন পেলে তো সব থকে ভাল। কিন্তু এমন ডমিন পাওয়াটা দুরহ ব্যপার। তাই, এখানে এর সাথে অতিরিক্ত কিছু এড করি ডমিন নিতে পারেন। যেমন, coffeemakerhoppers.com

অন্যদিক, বাংলাদেশের লোকাল ডমিন প্রভাইডাদের কাছথেকে আমি ডমিন নিতে সাপোর্ট করি না। তাই আপনি ডমিন কেনার জন্য, Godaddy, Namecheap অথবা অন্য কোন বিশ্বস্থ অনলাইন সোর্স থেকে ক্রয় করতে পারেন। যেখানে ডমিন এর পূর্ণ নিয়ন্ত্রন আপনার কাছেই থাকবে।

  • কিওয়ার্ড রিসার্চঃ

এখন আমাদের প্রধান কাজ হলো, ঐ প্রডাক্ট এর উপর সহজে সাইট র‌্যাংক করানো মত কিওয়ার্ড খুজে বের করা। সঠিক ভাবে কিওয়ার্ড রিসার্চ না করার ফলে অনেকের প্রজেক্ট’ই গোল্লায় গেছে বলে বিগত সময়ের ইতিহাসে জানা যায়।

অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মাকেটিং এর জন্য কিওয়ার্ড রিসার্চ হলো সব থেকে গুরুত্বপূর্ন কাজ।

নিশ সাইটের জন্যে আপনাকে এক বা একাধিক মেইন বায়িং কিওয়ার্ড থাকতে হবে। মেইন কিওয়ার্ডের জন্যে সার্চ ভলিউম নূন্যতম ১০০০ হতে হবে। আপনার পুরো সাইটের ম্যাক্সিমাম আর্নিং এই কিওয়ার্ডের মাধ্যমেই হবে।

এছাড়া ৪-৫টা সেকেন্ডারি বায়িং কিওয়ার্ড থাকতে হবে। এগুলো সার্চ ভলিউম নূত্যতম ২০০ থেকে শুরু করে উপরে যা খুশি হতে পারে।

কিওয়ার্ড সংগ্রহের জন্য, আপনি কাউকে হায়ার করতে পারেন। আর আমি পরবর্তীতে এর উপরে একটি পূর্ন আর্টিকেল লিখবো। তাতে আপনি কিওয়ার্ড রিসার্চ সম্পর্কে বেশ কিছু ধারনা লাভ করতে পারবেন বলে আশাকরি।

  • হোস্টিং প্লানঃ

প্রাথমিক অবস্থায় আপনাদের জন্য শেয়ার্ড হোস্টিং নেওয়াই শ্রেয়। এছাড়াও নিশ সাইটে তেমন বেশি ভিজিটর প্রয়োজন হয় নাই। তাই শেয়ার্ড হোস্টিং ই পর্যাপ্ত। যেহেতু প্রাথমিক অবস্থায় আমার বেশি বিনিয়োগ করতে পারবো না, তাই শেয়ার্ড হোস্টিং এর জন্য Namecheap এ একটি অফার আছে। যেখানে আপনি মাত্র ৯ ডলারে ১ বছরের জন্য হোস্টিং প্লান কিনতে পারবেন। আর সেখানে তিনটি সাইট হোস্ট করা যাবে। এবং পরবর্তী বছরের ঐ প্লান এর মূল্য হবে ৩৮ ডলার।

অর্থাৎ তারা নতুনদের সাইট তৈরি জন্য একটি বিশেষ সুযোগ দিচ্ছে। যাহা ব্যবহার করে, এক জন মার্কেটার নিজের অবস্থান গড়তে পারবে বলে আমি মনে করি।

এক বছরের মধ্যে একটি সাইট র‌্যাংক কারতে পারলে, আপনি হোস্টিং প্লান পরিবর্তন করেও নিতে পারবেন। কিংবা আপনি চাইলে, অন্য সার্ভারেও হোস্ট করতে পারবে।

  • ওয়ার্ড প্রেস ইনস্টলঃ

ওয়েব সাইট তৈরির জন্য সব থেকে জনপ্রিয় প্লাটফ্রম হলো ওয়ার্ডপ্রেস। তাই আমরা ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে’ই কাজ করবো। আর ওয়ার্ডপ্রেসে খুব সহজেই সব কাজ করা যায়। কোন প্রকার কোডিং জানার প্রয়োজন হয় না। এবং এটা ইনস্টল করাও খুব সহজ।

আপনার হোস্টিং প্রভাইডার আপনাকে একটি সিপ্যানেল এর এড্রেস দিবে। সেখানে লগইন করে, অটো ইনস্টলারের মাধ্যমে ওয়ার্ডপ্রেস ইনস্টল করতে পারেন।

প্রথম ডমিন এর ব্যপারে ডমিন এড করতে হবে না। আপনি হোস্টিং ক্রয়ের সময় ডমিন এড করে কিনতে পারবেন।

  • থিমঃ

এবার আসা যাক থিম এর বিষয়ে। থিম নিয়ে অনেক কৌতুহল আছে কোন থিম ব্যবহার করবো। ফ্রি থিম নাকি পেইড থিম। তবে প্রাথমিক অবস্থায় আপনার জন্য ফ্রি থিম’ই যথেষ্ট। যখন সাইটে ট্রাফিক আসতে শুরু করবে, এবং আয় হতে শুরু হবে তখন পেইড থিমি নিয়ে নিতে পারেন।

তবে এক্ষেত্রে কিছু সমস্যা আছে। ফ্রি থিমে কিছু কোডিং এরর থাকে। তবে এটা তেমন বড় কোন সমস্যা নয়।

আর যদি আপনি কোডিং এর কাজ পারেন, তবে সে গুলো আপনি নিজে সমাধান করতে পারেন। অথবা, কাউকে হায়ার করেও কাজটি করিয়ে নিতে পারেন।

  • অন পেইজ এসইওঃ

এ পর্যায়, সাইটে আর্টিকেল পাবলিশ করার আগে। সাইটের ভিতরের কাজ গুলো করতে হবে। অর্থাৎ অন পেইজ এসইও করতে হবে। অন পেইজ এসইওতে আপনার ওয়েব সাইটের ভিতরে সব কাজ গুলো, যেমন সাইট ওয়েব মাস্টারে সাবমিট করা, সাইটের বিষয়াদি সমূহ উল্লেখ করা, সাইট ম্যাপ তৈরি ও অন্যান যাবতীয় কার্যাবলী সম্পান্ন করতে হবে।

অন পেইজ এসইও এর জন্য এসইও ইয়োস্ট প্লাগিনটি সব থকে জনপ্রিয়। এবং এর মাধ্যমে সহজেই কাজ করা যায়।

  • আর্টিকেলঃ

এবার আসি আর্টিকেল বিষয়ে। হ্যা, একটি নিশ সাইটের জন্য আর্টিকেল হল অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। কারণ একটি নিশ সাইটের ট্রাফিক আসবে সার্চ ইঞ্জিন থেকে। সুতারাং ভাল আর্টিকেল না হলে সাইট গুগলে র‌্যাংক কারানো কঠিন হয়ে পরে।

আপনার ইংরেজি সম্পর্কে একটু ভাল দক্ষতা থাকলে আপনি নিজেই আর্টিকেল লিখতে পারেন। তেমন কঠিন কিছু নয়। আপনি যে প্রডাক্ট নিয়ে কাজ করবেন ঐ প্রডাক্ট এর বৈশিষ্ট সমূহ’ই তো লিখতে হবে, তাই না? একই গাওয়া গান, বহুত মানুষ  গেয়েছে আপনিও গাবেন। তবে শুধু একটু ভিন্ন আঙ্গিকে, নতুন করে গুছিয়ে এবং আপডেট তথ্য দিয়ে আবার লিখতে হবে।

তবে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে যেমন, আর্টিকেল Readability score ৫০-৬০ এর মধ্যে থাকলেই বলবে। অর্থাৎ বেশি কঠিন ওয়ার্ড ও ব্যবহার করতে হবে না। Article writing এর উপরে আমার ইংরেজী পোস্টটি পড়তে পারেন। পরবর্তীতে এর উপর বাংলা আর্টিকেল লেখার চেষ্টা করবো, সেখানে আপনি নিজেই কী ভাবে আর্টিকেল লিখবেন তার উপর বিস্তারিত আলোচনা থাকবে।

অন্যদিকে, আপনি আর্টিকেল লেখায় যদি দক্ষ না হয়ে থাকেন, তবে আপনি চাইলে আর্টিকেল কিনেও নিতে পারেন। প্রতি হাজার ওয়ার্ডের জন্য ৫০০+ টাকা ব্যায় করলে, মোটামুটি ভাল আর্টিকেল কিনতে পারবেন।

  • অফ পেইজ এসইওঃ

ব্যাস, আপনার সাইটের ভিতরের সব কাজ গুছানো প্রায় শেষ। এখন শুধু অফ পেইজ এসইও করার কাজ। আপনার নিশ সাইটের জন্য প্রয়োজনীয় লিংক বিল্ডিং, গেস্ট পোস্টিং, ডিরেক্টরি সাবমিশন ও অন্যান্য কাজ গুলো করতে হবে।

  • অন্যান্যঃ

সব শেষে আরো কিছু কাজ রেয়েছে, যেমন কিওয়ার্ড পজিশন চেক করা, সাইটের ব্যাংক লিংক গুলো দেখা, প্রতিযোগী সাইট গুলো গবেষনা করা ইত্যাদি।

এই বিষয়ে অনেক টুল আছে, যার মাধ্যমে আপনি আপনার সাইটের সব তথ্য পেতে পারেন। যেমন, গুগলে সার্চ করতে পারেন Keyword rank checker তাহলে দেখবেন অনেক গুলো সাইট আসবে। এভাবে প্রত্যেকটি বিষয় ই গুগলে পাবেন।

সমাপনীঃ

মূলত, অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর জন্য যত আলোচনা তাহা লিখে শেষ করা সম্ভব নয়। সরাসরি বললে কিছুটা হলেও বেশি বিষয়গুলো জানা যায়। অথবা আপনাদের প্রশ্নের মাধ্যমেও কিছু আলোচনা উঠে আসতে পারে।

পরবর্তী পর্বে আমার একটি ডেম সাইটের কথা মাথায় রেখে উপরোক্ত কাজ গুলো শুরু করবো। ধাপে থাপে সব কাজ গুলো করবো।

যাইহোক, এখানে অনেক আলোচনা খুব সংক্ষিপ্ত আকারে করা হয়েছে। সময়ের অভাবে সব কিছু করা সম্ভব হচ্ছে না। এর মধ্যে বেশ কিছু বিষয় সম্পর্কে বিষদ আর্টিকেল লিখতে হবে। আমাদের সাথেই থাকুন, আশা করি আপনাদের সেই লেখাগুলো দেওয়ার চেষ্টা করবো।

যারা অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং প্রথম পর্ব পড়েন নাই, তারা ঐটা পরে আসতে পারেন।

ধন্যবাদ।

About Md Arifur Rahman

4 comments

  1. onek gochano lekha! bai ami aj onek din dore try korteci affiliate soro korte. kinto keno jani kicoi boji boji na tai soro hoy na. ami seo er kaj shikhar por theke amr aktai kotha kibabe nije nejer site toiri kore seo korbo apnar lekha pore ami onopranito holam. amk jodi akto shohojogita korten ami shopol hote sohoj hoto.

    • ভাই, আমি আশা রাখি যে, আমি কিছু দিনের মধ্যেই অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর উপর পূর্ণ রিসোর্স দেওয়ার চেষ্টা করবো। আপতত কিছু কারনে লেখাটা স্থগিত আছে। তবে শিগ্রই আবার শুরু করার ইচ্ছা আছে।

  2. From your article I am getting a proper guideline about amazon affiliate marketing. Waiting for your next article.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

%d bloggers like this: